• Health & Beauty

Health & Beauty

  • ৳ 65
    • Face Mask - Super Soft & Comfortable
    • Noted: Per pcs  mask tk. 65 .
    • Minimum  order 50piecs
    • WHOLESALE  ORDER 500- 1000 pcs
    • Delivery 10-15 days
  • ৳ 350 ৳ 250
    • 3 Layer Surgical Mask (face masks ) are examples of personal protective.
    • One box 50 mask
  • ৳ 90
    • ঔষধি গুণাগুণ :
    • রক্ত প্রবাহ স্বাভাবিক রাখে :
    • আম আদার ভিতরে রয়েছে ম্যাগনেশিয়াম ও জিঙ্ক যা শরীরের রক্তপ্রবাহ স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে থাকে।
    • পেটের গন্ডগোল হলে :
    • আম আদার রস করে তা খেলে পেটের গন্ডগোলে উপকার পাওয়া যায়।
    • ব্যাথানাশক :
    • আম আদার রস ব্যথা নাশক ঔষধেল মতো কাজ করে। সরাসরি আক্রন্ত স্থানে লাগালে উপকার পাওয়া যায়।
    • বমি ভাব দূর করে :
    • শরীরের ভিতরে বমি বমি ভাব দেখা দিলে আম আদার রস খেলে বমিভার কেটে যায়।
    • হজমশক্তি বৃদ্ধি পায় :
    • হজমশক্তি কমে গেলে প্রতিদিন আম আদা খেলে হজমশক্তি বৃদ্ধি পায়।
    • ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণ করে :
    • আম আদা ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ ও রক্তে সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রলে রাখে।
  • ৳ 120
    • উপকারী জেল সহ পুরো পাতা ব্যবহার করে শুকনো!
    • যে কোনও প্রসাধনী বা স্বাস্থ্য প্রয়োগের জন্য উপযুক্ত!
    • রাসায়নিক বা কীটনাশক ছাড়াই জন্মে!
    • প্রাকৃতিক এবং খাঁটি, কোনও কৃত্রিম গন্ধ নেই, আসক্তি নেই, সংরক্ষণকারী নেই, এমএসজি নেই
    • ত্বক এবং চুল চিকিত্সার জন্য
    • অ্যালোভেরার গুঁড়া 100% প্রাকৃতিক এবং শুকনো অ্যালোভেরার পাতা থেকে তৈরি এটি সরাসরি ব্যবহার করা যেতে পারে এটি চুলে আর্দ্রতা এবং শর্ত যুক্ত করে, নতুন বৃদ্ধিকে পুষ্টি দেয়, চুলকানি নিরাময় করে, চুলের বৃদ্ধিকে উদ্দীপিত করতে সহায়তা করে , এটি মাথার ত্বক এবং চুলের পিএইচ স্তর বজায় রাখতে সহায়তা করে। অ্যালোভেরার গুঁড়ো মেহেদি দিয়ে প্রয়োগ করা হয়, চুলে দীর্ঘ সময় ধরে রঙ ধরে রাখতে সহায়তা করেত্বকের জন্য। আপনার তালুতে আধা টেবিল চামচ অ্যালোভেরার সাথে সামান্য জল মিশিয়ে পেস্ট ফার্মে পরিণত করুন। 5 মিনিট অবধি গোলাকার গতিতে পেস্টটি প্রয়োগ করুন এবং ভালভাবে ধুয়ে নিন। চুলের জন্য মিশ্রণটি এক চামচ নিন এবং এটি আপনার মাথার ত্বকে ম্যাসাজ করুন। আপনি পরে ব্যবহার করার জন্য বাকীটি একটি পাত্রে সংরক্ষণ করতে পারেন। এটি প্রায় 10 মিনিটের জন্য রেখে দিন এবং তারপরে আপনার চুল ধুয়ে ফেলুন। হালকা শ্যাম্পু দিয়ে আপনার চুল ধুয়ে নিন এবং কন্ডিশনার দিয়ে শেষ করুন।
  • ৳ 80
    • উপকারিতা ১. আমলকি চুলের টনিক হিসেবে কাজ করে এবং চুলের পরিচর্যার ক্ষেত্রে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। এটি কেবল চুলের গোড়া মজবুত করে তা নয়, এটি চুলের বৃদ্ধিতেও সাহায্য করে। এটি চুলের খুসকির সমস্যা দূর করে ও পাকা চুল প্রতিরোধ করে। ২. আমলকির রস কোষ্ঠকাঠিন্য ও পাইলসের সমস্যা দূর করতে পারে। এছাড়াও এটি পেটের গোলযোগ ও বদহজম রুখতে সাহায্য করে।৩. এক গ্লাস দুধ বা পানির মধ্যে আমলকি গুঁড়ো ও সামান্য চিনি মিশিয়ে দিনে দু’বার খেতে পারেন। এ্যাসিডেটের সমস্যা কম রাখতে সাহায্য করবে।৪. আধা চূর্ণ শুষ্ক ফল এক গ্লাস পানিতে ভিজিয়ে খেলে হজম সমস্যা কেটে যাবে। খাবারের সঙ্গে আমলকির আচার হজমে সাহায্য করে।৫. প্রতিদিন সকালে আমলকির রসের সঙ্গে মধু মিশে খাওয়া যেতে পারে। এতে ত্বকের কালো দাগ দূর হবে ও ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়বে।৬. আমলকির রস দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। এছড়াও চোখের বিভিন্ন সমস্যা যেমন চোখের প্রদাহ। চোখ চুলকানি বা পানি পড়ার সমস্যা থেকে রেহাই দেয়। আমলকি চোখ ভাল রাখার জন্য উপকারী। এতে রয়েছে ফাইটো-কেমিক্যাল যা চোখের সঙ্গে জড়িও ডিজেনারেশন প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। ৭. প্রতিদিন আমলকির রস খেলে নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধ দূর হয় এবং দাঁত শক্ত থাকে। আমলকির টক ও তেতো মুখে রুচি ও স্বাদ বাড়ায়। রুচি বৃদ্ধি ও খিদে বাড়ানোর জন্য আমলকী গুঁড়োর সঙ্গে সামান্য মধু ও মাখন মিশিয়ে খাওয়ার আগে খেতে পারেন। ৮. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এবং মানসিক চাপ কমায়। কফ, বমি, অনিদ্রা, ব্যথা-বেদনায় আমলকি অনেক উপকারী। ব্রঙ্কাইটিস ও এ্যাজমার জন্য আমলকির জুস উপকারী। ৯. শরীর ঠাণ্ডা রাখে, শরীরের কার্যক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে, পেশী মজবুত করে। এটি হৃদযন্ত্র, ফুসফুসকে শক্তিশালী করে ও মস্তিষ্কের শক্তিবর্ধন করে। আমলকির আচার বা মোরব্বা মস্তিষ্ক ও হৃদযন্ত্রের দুর্বলতা দূর করে। শরীরের অপ্রয়োজনীয় ফ্যাট ঝরাতে সাহায্য করে। ১০. ব্লাড সুগার লেভেল নিয়ন্ত্রণে রেখে ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। কোলেস্টেরল লেভেলেও কম রাখাতে যথেষ্ট সাহায্য করে।
  • ৳ 90
    • বাসক পাতার উপকারিতাঃ
    • ১। বুকে কফের জন্য শ্বাসকষ্ট ও কাশি হলে বাসক পাতা ১/২ চা চামচ মধু সহ খেলে কফ সহজে বেরিয়ে আসে।
    • ২। বাসক পাতার রসপর সাথে ১/ ২ চামচ মধু মিলিয়ে খেলে ছোট বড় সবারি সর্দি কাশি উপশম হয়।
    • ৩। বাসক পাতার রস ১ বা ২ চামচ মধু সহ খেলে জন্ডিস রোগে উপকার পাওয়া যায়।
    • ৪। বাসক পাতা হাঁপানিতে খুবি কার্যকরী।
    • ৫। বাসক পাতার সাথে কাঁচা হলুদ বেটে দাদ চুলকানিতে লাগালে কয়েকদিনের মধ্যে তা সেরে যায়।
    • ৬। বাসক পাতা দীর্ঘক্ষণ পানিতে রাখলে পানি বিশুদ্ধ হয়।
    • ৭। বাসক পাতার রস নিয়মিত খেলে খিঁচুনি রোগ সারে।
    • সেবন পদ্ধতিঃ ৫ গ্রাম বা ১ চা চামচ পাউডার ১ কাপ পানিতে কিছুক্ষণ ভিজিয়ে খাবেন।
Scroll